মেনু নির্বাচন করুন
দেশের গৃহায়ন সমস্যার সমাধানে সহায়ক ভূমিকা হিসাবে জনসাধারণকে আর্থিক সহযোগিতা প্রদানের উদ্দেশ্যে ১৯৫২ সালে হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত হয়।পরবর্তীতে স্বাধীনতা উত্তর ১৯৭৩ সালে জারীকৃত রাষ্ট্রপতির ৭ নং আদেশ বলে বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন (বিএইচবিএফসি)পুনর্গঠিত হয়। মানুষের ৫ টি মৌলিক চাহিদার অন্যতম হল বাসস্থান।এই প্রকট আবাসিক সমস্যার সমাধানে সহায়তা প্রদান করাই বিএইচবিএফসির মূল উদ্দেশ্য। কর্পোরেশনের ১৪ টি জোনাল অফিসের মধ্যে ৯ নং খুলনা জোনাল অফিস নগরীর প্রাণকেন্দ্র পাওয়ার হাউস মোরে অবস্থিত। এটি যশোর ও কুষ্টিয়া রিজিওনাল অফিসের বিভাগীয় সদর দপ্তর।

সাধারণ তথ্য

মানুষের ৫ টি মৌলিক চাহিদার অন্যতম হল বাসস্থান।এই প্রকট আবাসিক সমস্যার সমাধানে সহায়তা প্রদান করাই বিএইচবিএফসির মূল উদ্দেশ্য। কর্পোরেশনের ১৪ টি জোনাল অফিসের মধ্যে ৯ নং খুলনা জোনাল অফিস নগরীর প্রাণকেন্দ্র পাওয়ার হাউস মোরে অবস্থিত। এটি যশোর ও কুষ্টিয়া রিজিওনাল অফিসের বিভাগীয় সদর দপ্তর।

সাংগঠনিক কাঠামো

কর্মকর্তাবৃন্দ

ছবিনামপদবিফোনমোবাইলইমেইল
মোঃ তোফায়েল আহমেদজোনাল ম্যানেজার০৪১-৭২৪০১৩01720107087bhbfc.khulnaz9@gmail.com
মোঃ রূহুল আমীনসিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার৭২৩৫১২bhbfc.khulnaz9@gmail.com
মিসেস সাহীন আরা বেগমপ্রিন্সিপাল অফিসার০১৮১৯৭২৫৮০৭bhbfc.khulnaz9@gmail.com
মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুনসিনিয়র অফিসার০১৯২৪৪৪৫৪২৪mukul.vmcl@gmail.com

কর্মচারীবৃন্দ

ছবিনামপদবি
কর্মচারীর নামউচ্চমান সহকারী

প্রকল্পসমূহ

বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন এর কোন প্রকল্প গ্রহন করা হয় নি। কোন প্রকল্প গ্রহণ করা হলে তা প্রকাশ করা হবে।

যোগাযোগ

বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন

১০৪৬/১ খান এ সবুর রোড, খুলনা।

ফোনঃ ৭২৪০১৩

ফ্যাক্সঃ৭২০৪৩৬

কী সেবা কীভাবে পাবেন

গৃহ নির্মাণের জন্য সরকার নিধারীত বিধি বিধানের আলোকে এই কার্যালয় থেকে সেবা প্রার্থীকে প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করা হয়।

প্রদেয় সেবাসমূহের তালিকা

সিটিজেন চার্টার

বাংলাদেশহাউসবিল্ডিংফাইনান্সকর্পোরেশন

স্থাপিতঃ১৯৫২ইং

সিটিজেনচার্টার

১. ঋণপ্রাপ্তিরযোগ্যতাঃ

(ক)প­ট/জমির মালিকানা (খ) প্রাথমিক বিনিয়োগ সামর্থ্য (প্রাক্কলিত ব্যয়ের কমপক্ষে ২০%)

(গ)বাংলাদেশের নাগরিক।

 

২. ঋণ আবেদনের সাথে যে সমস্ত দলিল পত্রাদি/কাগজ পত্রাদি জমাদিতে হবেঃ

(ক)সরকারী/জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ/রাজউক/সিডিএ/কেডিএ/আরডিএ/ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড/হাউজিং সোসাইটি কর্তৃক বরাদ্দকৃত/লীজ প্রদত্ত জমির ক্ষেত্রেঃ

১.মূল বরাদ্দ পত্র (এলোর্টমেন্টলেটার) যদি থাকে;

২.দখল হস্তান্তর পত্র(পজেশন লেটার) যদি থাকে;

৩.মূললীজ দলিল ও এর একটি ফটোকপি (১ম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত), মূল দলিল রেজিস্ট্রী অফিস থেকে পাওয়া না গেলে দলিল উঠানোর মূল রশিদ ও একটি সার্টিফাইড কপি।

৪.প্রস্তাবিত জমি কর্পোরেশনের নিকট বন্ধক রাখার ব্যাপারে অনাপত্তি পত্র (এন.ও.সি) বন্ধক অনুমতিপত্র।

 

(খ)বেসরকারী/ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির ক্ষেত্রেঃ

            ১.আবেদনকারীর মূল মালিকানা দলিল (সাফ-কবলা/দানপত্র/বন্টননামা);

            ২.সি.এস,এস.এ,আর.এসওসিটি জরীপ (প্রযোজ্যক্ষেত্রে)খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি;

            ৩.নামজারীর খতিয়ানসহ ডি.সি.আর ও হালনাগাদ খাজনা পরিশোধের রশিদ;

 ৪.এস.এ/আর.এস রেকর্ডীয় মালিক থেকে¯^‡Z¡i ধারাবাহিকতা প্রমাণের জন্য চেইন অব ডকুমেন্টস (দলিল/পর্চা) এর সত্যায়িত ফটোকপি;

 5.জেলা রেজিস্ট্রার/সাব-রেজিস্ট্রারের অফিস থেকে পূর্ববর্তী১২ (বার) বছরের তল্লাশীসহ নির্দায় সার্টিফিকেট (এন.ই.সি)

 

(গ)সরকারী/বেসরকারী উভয় ক্ষেত্রে নিম্নের কাগজপত্রা দিও দাখিল করতে হবেঃ

১।যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নির্মিতব্য বাড়ীর নকাশার অনুমোদনপত্র সহ ২ (দুই) কপি নকশা

২।ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সিটির ক্ষেত্রে জমির সয়েলটেস্ট রিপোর্ট;

৩।বহু তল বাড়ী নির্মাণের ক্ষেত্রে উপযুক্ত প্রকৌশলী কর্তৃক দেয়া ২ কপি স্ট্রাকচারাল ডিজাইন ও ভার বহন সনদ;

৪।গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার উল্লেখ পূর্বক ২ (দুই) কপি হাতে আঁকা সাইটম্যাপ;

৫।ঋণ আবেদনকারীর ৩ (তিন) কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত কপি ও সাদা কাগজে সত্যায়িত¯^v¶i;

৬।আবেদনকারীর আয়ের প্রমানপত্র ও চাকুরীর ক্ষেত্রে ঋণ আবেদন পত্রের ফর্মের নির্দিষ্ট পাতায় বেতন সনদ এবং ব্যবসায়ের ট্রেড লাইসেন্সসহ  আয় এর প্রমাণপত্র।

৭।বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন বাংলাদেশের সর্বত্র কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে । স্থান/এলাকা ভেদে ঋণের পরিমাণে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে/এলাকা ভেদে ঋণের সিলিং  নিম্নরূপঃ

 

 

প্রতি ইউনিট সর্বনিম্ন ৫৫০বঃফুট থেকে সর্বোচ্চ ১০০০ বঃফুঃ

ঋণ প্রাপ্তির জন্য ফি-সমূহঃ                                                              ঋণের সুদের হারঃ

১।আবেদন ফিঃপ্রতি হাজারে ৩/-টাকা।                              ১।ঢাকাওচট্টগ্রামমেট্রোপলিটনএলাকায়১২%।      

২।পরিদর্শন ফিঃ প্রতি হাজারে ৩/-টাকা।                             ২।অন্যান্যবিভাগ,জেলাওউপজেলাসদরেঃ১০%।  

৩।বাড়ী/ফ্লাট হস্তান্তর ফিঃ৭৫০০/-টাকা।

৪।বিভাজন ফিঃ৩০০০/-টাকা।                                                    ফ্ল্যাটঋণেরক্ষেত্রেঃ

৫।ঋণ আবেদন পত্রের মূল্যঃ৫০০/-টাকা।                                       ১।আবেদনপত্রেরমূল্য১০০০/-টাকা(প্রতিটি)

৬।হস্তান্তর আবেদন পত্রের মূল্যঃ২৫০/-টাকা(প্রতিটি) ২।আবেদন ফি ও পরিদর্শন ফি প্রতি হাজারে ৫/-

 

বিঃদ্রঃঋণের সিলিং, সুদের হার এবং অন্যান্য ফি এর পরিমাণ সময়ে সময়ে পরিবর্তন যোগ্য।

 

 


তথ্য অধিকার

বিজ্ঞপ্তি

ডাউনলোড

আইন ও সার্কুলার